নুসরাতকে নিয়ে সিনেমা!

30

কালের সমাচার ডেস্ক।

চলচ্চিত্র নির্মাতা দেলোয়ার জাহান ঝন্টু ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির নির্মম মৃত্যুর একমাস না পেরুতেই সেই নির্মম ঘটনা নিয়ে সিনেমা বানানোর পরিকল্পনা করেছন।

ফোকাস বাংলা জানিয়েছে ১৭ এপ্রিল বুধবার দুপুরে পরিচালক নিজেই বিষয়টি মুঠোফোনে নিশ্চিত করেছেন।

দেশের খ্যাতিমান এই চলচ্চিত্র নির্মাতা জানিয়েছেন তার সিনেমার নাম রেখেছেন ‘নুসরাত’।

দেলোয়ার জাহান ঝন্টু নির্মিতব্য সিনেমা প্রসঙ্গে বলেন, “নুসরাত জাহান রাফির হত্যার বিষয়টি দেশের আলোচিত একটি ঘটনা।

নুসরাতের জন্য সারাদেশের মানুষ কেঁদেছে।

তাছাড়া এ ধরনের হত্যার ঘটনায় দোষীদের যে নির্মম শাস্তি হয় সেটা আমি সিনেমায় তুলে ধরবো যেন এমন অপরাধ করতে আর কেউ সাহস না পায়, যেন অপরাধীরা ভয় পায়”।

তিনি আরও বলেন “বাংলাদেশে নারী নির্যাতন ও যৌন হয়রানির ঘটনা আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

আর এ কারণেই নির্মমভাবে জীবন দিতে হলো নুসরাতকে।

একজন মানুষ হিসেবে, একজন পরিচালক হিসেবে নুসরাতের এমন করুণ মৃত্যুর দায় আমি এড়িয়ে যেতে পারি না।

ঝন্টু বলেন, “তবে সিনেমাটির কাজ শুরু করতে একটু দেরি হবে।

কারণ নুসরাতের হত্যা মামলা এখনো আদালতে বিচারাধীন।

তাই অপরাধীরা কী শাস্তি পায় সেটা না দেখা পর্যন্ত আমাকে অপেক্ষা করতে হবে।

মনগড়া কিছুতো আর তুলে ধরা যাবে না”।

নিজের দায়িত্ববোধ থেকেই এ ছবিটি নির্মাণ করব আমি”।

বাংলাদেশের সর্বাধিক সিনেমার পরিচালক আরও বলেন, “আমি নুসরাতের গ্রামের বাড়িতে যাবো।

তার সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানবো।

তার পরিবারের সঙ্গে কথা বলবো।

যা তথ্য পাবো পর্দায় তাই তুলে ধরবো”।

এরই মধ্যে নির্মাতা শুরু করেছেন চলচ্চিত্রের প্রাথমিক প্রস্তুতিও নিতে।

তিনি জানান সব ঠিক থাকলে ছবিটি চলতি বছরই মুক্তি পাবে।

পরিচালক আরও জানিয়েছেন শিগগিরই ঘোষণা করবেন কে নুসরাতের চরিত্রে অভিনয় করবেন।

উল্লেখ্য, ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের মামলা করায় দুর্বৃত্তরা গত ৬ এপ্রিল কেরোসিন ঢেলে নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এতে নুসরাতের শরীরের ৮০ ভাগ পুড়ে যায়।

গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্তায় নুসরাত মৃত্যুবরণ করেন।

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.