বর্ণাঢ্য আয়োজনে ইউল্যাবে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত।

308

কালের সমাচার ডেস্ক।

১৯ এপ্রিল, শুক্রবার বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব), ২০১৯ প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে এর স্থায়ী ক্যাম্পাস মোহাম্মদপুরে।

সারাদিন নাচ, গান, ক্রিকেট, ফুটবল, ফ্ল্যাশ মোব, কনসার্ট, বার-বি-কিউ, ফায়ার ওয়ার্কস সব কিছু মিলিয়ে এক অন্যরকম প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় ইউল্যাব ক্যাম্পাসের সবুজ চত্বরে।

তবে সারাদিনের বিশেষ আকর্ষণ ছিল সায়ান চৌধুরী অর্নবের গান। অর্নবের হোক কলরব থেকে নিলচে তারায় মেতে উঠে সবাই।

সাবেক শিক্ষার্থীরা উল্লাসে মেতে উঠে পুরাতন বন্ধুদের পেয়ে। হারানো দিনগুলো যেন ফিরে পায়।

এক আবেগঘন পবিবেশের সৃষ্টি হয় প্রাক্তন শিক্ষার্থী, বর্তমান শিক্ষার্থী ও শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মিলন মেলায়।

প্রিয় শিক্ষকের সাথে অনেক দিন পর দেখা হয়, আড্ডা হয় পুরনো বন্ধুদের সাথে।

পুরনো কাম্পাসের পরিবর্তন আর উন্নতিতে অনেকেই আবেগ আপ্লুত হয়ে যায়।

অনেক ছোট শিশুরা বাবা মায়ের সাথে ঘুরাতে আসেন তার বাবা মায়ের ভালবাসার ক্যাম্পাসে,

ঘুরতে এসে শিশুরা বাবা মায়ের মতই আনন্দে আত্তহারা হয়ে যায়।

ছোট ছোট শিশুরা বাবা মায়ের হাত ধরে গুরে বেরায় কাম্পাসের আনাচে কানাচে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সাবেক শিক্ষার্থীদের সেতু বন্ধন সৃষ্টি করতে, ইউল্যাবের সাবেক শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ্যালামনাই এস্যোসিয়েশন গঠনের লক্ষে একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করা হয়।

সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়, ইউল্যাব এ্যালামনাই এস্যোসিয়েশন গঠন করা হবে সাবেক শিক্ষার্থীদের প্রত্যক্ষ ভোটে।

অ্যালামনাই হোমকামিং শিরোনামে ইউল্যাব ক্যারিয়ার সার্ভিসেস অফিস এই মিলনমেলার আয়োজন করে।

স্বাগত বক্তব্য দেন ইউল্যাবের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সামসাদ মর্তূজা।

বিশেষ বক্তব্য রাখেন ইউল্যাব বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর সদস্য ও সহকারী অধ্যাপক জুডিথা ওলমার।

তিনি বলেন “আমি আজ এই মিলন মেলায় আমার অনেক পুরাতন ছাত্র ছাত্রী দের দেখতে পেলাম, আমি খুবই খুশি।”

এছাড়াওইউল্যাব বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর বিশেষ উপদেষ্টা ও ইউল্যাব স্কুল অব বিজনেস এর ডীন অধ্যাপক ইমরান রহমান বক্তব্য রাখেন।

পরিশেষে নতুন এ্যালামনাই কার্যকরী পরিষদের নাম ঘোষণা করেন ইউল্যাবের উপাচার্য অধ্যাপক ড. জহিরুল হক।

সাবেক ছাত্রছাত্রীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা উল্লেখ করে সবাইকে ইউল্যাবের অগ্রগতিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে বলেন।

নতুন এই কার্যকরী কমিটির যাত্রা শুরু হয় কেক কেটে ও বেলুন উড়িয়ে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাবের ট্রেজারার অধ্যাপক মিলন কুমার ভট্টাচার্য্য, রেজিস্ট্রার আখতার আহমেদ,

ইউল্যাব ক্যারিয়ার সার্ভিসের পরিচালক আবু হেনা মো. রাসেলসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও কর্মকর্তারা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.